জানা এবং বুঝা By অপূর্ব চৌধুরী


দেশি অধিকাংশ লেখক, বুদ্ধিজীবীগুলো হলো এমন – যারা অনেক কিছু জানে, অথবা ভাবখানা দেখায় অনেক কিছু জানা তাদের, কিন্তু একটা বাচ্চা কিংবা স্কুল পড়ুয়াকে সেটা তার ভাষায় সহজ করে বুঝাতে বললে অধিকাংশই বুঝাতে পারে না এবং বুঝাতেও পারবে না ।

কারণ, কিছু জানা এবং অনেক কিছু বুঝা, একই নয় । জানা এক জিনিস, বুঝা আরেক জিনিস । Knowing vs Understanding ।

একটি হলো কিছু তথ্যকে নিজের ভেতর জোগাড় করা, এটি হলো তিনি জানেন । আরেকটি হলো সেই তথ্য বুঝে নিজের মতো সহজ করে প্রকাশ করতে পারা । এটি হলো তিনি বুঝেন ।

যতক্ষণ পর্যন্ত খেলতে পারবেন না কোনো খেলা, ততক্ষন পর্যন্ত সেই খেলা সম্পর্কে যতই খুঁটি নাটি জানেন না কেন, একজন সাধারণ খেলোয়াড়ের মানেরও আপনি হয়ে ওঠেন না ।

জানাটুকু দর্শক হয়ে খেলা দেখা, বুঝটুকু মাঠে নেমে খেলা ।

অনেকে মনে করেন যে – অনেকেই অনেক কিছু জানে, কিন্তু বলতে বা প্রকাশ করতে পারে না । কথাটি বোকাদের যুক্তি, মূর্খতার ষোলো আনা ।

কোনো কিছু সঠিক বুঝলে সেটি সঠিক ভাবে প্রকাশ পাবেই । কারণ, কেউ যখন তার মনের কথাটি বলে, সেখানে তার বুঝের পাকাপোক্ত অবস্থান থেকেই বলে । সেখানে তিনি কি জানলেন, কোন উচ্চ বনেদি শব্দের অর্থ জানলেন না, সেটার হিসাব কিতাব হয় না ।

বুঝের প্রকাশ আপনাতে আসে এবং সরল হয় । শুধু জানার প্রকাশ কিছু কথাকে কেবল জড়ো করা হয়, কিন্তু কথাগুলো কথা শেষে অর্থের কোনো সরলতা প্রকাশ করে না ।

শুধু কিছু জানলে সেই জানাটুকু নকল নবীশের মতো উগরে দেয়া যায় । সেখানে নিজের কোনো বুঝের খেলা হয় না ।

যেমনটা আমাদের দেশের স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটির বিশাল অংশের ছাত্র এবং শিক্ষক, উভয় পক্ষই এমন বেহাল অবস্থায় চলে ।

অনেকেই হয়তো দাবি করবেন – ওনাদের অনেক ভালো রেজাল্ট, দেশ-বিদেশের অনেক প্রতিষ্ঠানের ডিগ্রি আছে ! শিক্ষক মশাই ফাস্ট ক্লাস পাওয়া ছাত্র, তিনি অনেক জানেন এবং সেই জানার ফলাফল এবং প্রমাণ তার প্রথম শ্রেণী, কিন্তু তিনি সহজ করে তার বিষয়টিও কোথাও বুঝাতে পারেন না । তিনি তার বিষয়ের সবচেয়ে ভালো জানা বিষয়টি একজন অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীকে বুঝাতে পারেন না, কিন্তু তিনি ইউনিভার্সিটি লেভেলের শিক্ষক, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ারদের পড়ান ।

যার নিজেরই এখনো বুঝের পড়া হয়ে উঠে নি, তিনি কি করে অন্যকে বুঝাবেন । যে প্রক্রিয়ায় তিনি জানার সমাবেশ ঘটিয়েছেন, একই প্রক্রিয়ায় তিনি সেই জানাটুকুকেই প্রসাদ বিতরণের মতো বিলাবেন ।

যিনি জানেন কিছু, কারণ তিনি তার বিষয়ের টার্মিনোলজি গুলো দিয়ে তার বিষয়টিকে তার বিভাগের দূরত্ব পর্যন্ত জানেন । কিন্তু তিনি সেটি তার জীবন এবং চারপাশের সাথে মিলিয়ে সহজ ভাষায় বলতে পারেন না । কারণ তিনি বিষয়টি জেনেছেন, কিন্তু বুঝেন নি । তার জানাটুকু হলো ওই বিষয়ে ভাড়া করা, তার বুঝটুকু হলো ওই বিষয়ে নিজের একটি স্থায়ী বাড়ি করা ।

আইনস্টাইনকে একবার জিজ্ঞাস করা হয়েছিল – জানা এবং বুঝা, এই দুটোর মধ্যে পার্থক্য কি ! উত্তরে বললেন – “Any fool can know. The point is to understand.”



December 28th, 2020